করোনা প্রতিরোধে ১২০০ টিকা দিলেন একজন চিকিৎসকই!

142

উল্লাপাড়া উপজেলা মেডিকেল অফিসার ডা. মো. আলামিন হোসেন। করোনা ভা’ইরা’স প্রতিরোধে দায়িত্ব পালন করেছেন শুরু থেকেই। বাড়ি বাড়ি গিয়ে করোনা আ’ক্রা’ন্ত রোগীদের সাহস ও সচেতন করার জন্য কাজ করেছেন।

সম্মুখসারির যোদ্ধা হয়ে কাজ করতে গিয়ে দুইবার আ’ক্রা’ন্ত হয়েছে করোনায়। তবুও থেমে যাননি এ সাহসী ডাক্তার। এবার উপজেলার কো’ভিড-১৯ ভ্যাকসিনেশন টিমের প্রশিক্ষক ও প্রধান টিকাদানকারী হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন ডা. আলামিন।

নিষ্ঠার সঙ্গে পালন করছেন এ দায়িত্বও। এখন পর্যন্ত ১২শ’র বেশি মানুষকে টিকা নিয়েছেন তিনি। এ তালিকায় চিকিৎসক, স্বাস্থ্যকর্মী, জনপ্রতিনিধি, প্রশাসন, পুলিশ, শিক্ষক, সরকারি কর্মকতা ও সাধারণ মানুষ রয়েছে বলে জানা গেছে।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে ডা. আলামিন বলেন, ‘এখন পর্যন্ত উল্লাপাড়াতে প্রায় ৪ হাজার মানুষ অনলাইন নিবন্ধন করেছেন। ১ম ডোজ টিকাগ্রহণ করেছেন সর্বমোট ২৪৮৯ জন। চেষ্টা করেছি সর্বস্তরের শ্রেণীপেশার মানুষকে টিকামুখী করতে।

আমার জন্ম উল্লাপাড়াতেই। পড়াশোনা, খেলাধুলা ও ছাত্ররাজনীতির সঙ্গে যুক্ত থাকায় অনেকের সঙ্গে সুসম্পর্ক। এজন্য টিকাগ্রহণ করার আগে অনেকেই আমার সঙ্গে যোগাযোগ করেন। পরিচিত মুখের কাছে টিকা গ্রহণ করে অনেকেই মানসিকভাবে তৃপ্তিবোধ করেন।

এজন্যই টিকা দেওয়ার সংখ্যাটা ১২শ’ পেরিয়ে গেছে।’ কাউকে টিকা দেওয়ার সময় কোনো ধরনের অসুবিধা বা প্রতিবন্ধকতা তৈরি হয়নি বলেও জানান ডা. আলামিন।

তিনি আরও জানান, সবাই হাসিমুখে টিকা নিয়ে বাড়ি ফিরেছেন। তাদের কাছে টিকা নেওয়ার খবর শুনে অন্যরাও টিকা নিতে আসছেন। ভয়কে জয় করে উল্লাপাড়ায় করোনা টিকা নেওয়ার পরিমাণ দিন দিন বাড়ছে।