পাকিস্তান এয়ার ফোর্সের বিমান বিধ্বস্ত !

73

পাকিস্তান এয়ার ফোর্সের (পিএএফ) একটি বিমান নিয়মিত প্রশিক্ষণকালে বিধ্বস্ত হয়েছে। পূর্বাঞ্চলীয় পাঞ্জাব প্রদেশে মঙ্গলবার এটি বিধ্বস্ত হয়।

এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, পাইলট নিরাপদে বেরিয়ে আসতে পেরেছেন। এতে জানমালের কোন ক্ষতি হয়নি। তদন্ত বোর্ডকে দুর্ঘটনার কারণ খতিয়ে দেখার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

এদিকে দুর্ঘটনার কারণ সম্পর্কে কিছু বলেনি পিএএফ। তবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দুর্ঘটনাস্থলের যে সব ছবি প্রকাশ করা হয়েছে তাতে দেখা গেছে বিমানটি সম্পূর্ণ পুড়ে গেছে।

এতে ধারণা করা হচ্ছে মাটিতে বিধ্বস্ত হওয়ার আগে কিংবা পরে এতে আগুন ধরেছিল।

এদিকে গ্রীসের সাথে উত্তেজনার মধ্যেই কৃষ্ণসাগরে অনুসন্ধান জাহাজ পাঠিয়েছে তুরস্ক। পূর্ব ভূমধ্যসাগরে উত্তেজনা ক্রমশ বাড়ছেই। এবার তেল-গ্যাস অনুসন্ধান নিয়ে গ্রীসের উত্তেজনার মধ্যেই কৃষ্ণসাগরে আর একটি অনুসন্ধান জাহাজ পাঠাচ্ছে তুরস্ক। তবে এতে উত্তেজনা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

তুরস্কের জ্বালানীমন্ত্রী ফাতেহ দোনমাজ এক টুইট বার্তায় জানান, তার দেশ কৃষ্ণসাগরে তেল-গ্যাস অনুসন্ধানের জন্য আরেকটি জাহাজ পাঠাচ্ছে। শিগগিরই ‘কানুনি’ নামের জাহাজটি তার কাজ শুরু করবে। কৃষ্ণসাগরের ঠিক কোন জায়গায় এ অনুসন্ধান চালানো হবে তা স্পষ্ট করেননি ফাতেহ দোনমাজ।

তুরস্কের সাথে সাম্প্রতিক সময়ে লিবিয়া সরকারের সঙ্গে সাগরে তেল-গ্যাস অনুসন্ধান বিষয়ক চুক্তি সইয়ের পর থেকে পূর্ব ভূমধ্যসাগরের খনিজ সম্পদ নিয়ে তুরস্ক, গ্রিস ও সাইপ্রাসের মধ্যে উত্তেজনা বেড়েছে। গ্রিসের বিরোধিতা সত্ত্বেও সাগরের বিতর্কিত এলাকায় তেল-গ্যাস অনুসন্ধান চালিয়ে যাচ্ছে আঙ্কারা। এজন্য তারা সাগরে গবেষণা ও অনুসন্ধান জাহাজ পাঠিয়েছে।

অন্যদিকে, গ্রিস তুরস্কের জাহাজকে নজরদারি করার জন্য তার সামরিক বাহিনীকে নির্দেশ দিয়েছে। অপরদিকে, তুরস্কের সঙ্গে ক্রমবর্ধমান এই উত্তেজনার মধ্যেই গ্রিস বিপুল পরিমাণ অস্ত্র কেনার কথা ঘোষণা দিয়েছে।