সপরিবারে করোনা মুক্ত হয়েছেন শহীদ আফ্রিদি

307

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসকে হারিয়ে দিয়েছেন পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক শহিদ আফ্রিদি। তার স্ত্রী ও দুই মেয়েরও করোনাভাইরাস পরীক্ষার ফল নেগেটিভ এসেছে।

আজ ২ জুলাই, বৃহস্পতিবার বিকালে টুইটারে এই সু-সংবাদ জানিয়েছেন আফ্রিদি স্বয়ং। গত ১৩ জুন ৪০ বছর বয়সী এই অল-রাউন্ডার কোভিড-১৯ পজিটিভ হওয়ার কথা জানিয়েছিলেন ।

টুইটারে আফ্রিদি লিখেন, আলহামদুলিল্লাহ, আমার স্ত্রী ও কন্যারা, আকসা ও আনশা কোভিড-১৯ পজিটিভ হওয়ার পর ফের পরীক্ষা করিয়েছে এবং তারা এখন করোনামুক্ত। আমাদের জন্য দোয়া করার সবার প্রতি কৃতজ্ঞ এবং সৃষ্টিকর্তা যেন আপনাদের সবাইকে ভালো রাখে। এখন পরিবারকে সময় দেওয়ার পালা। আমি এটা খুব মিস করেছি।

মহামারি শুরুর পর থেকেই নিজের প্রতিষ্ঠিত ‘শহীদ আফ্রিদি ফাউন্ডেশন’র মাধ্যমে করোনায় ক্ষতিগ্রস্তদের সাহায্যার্থে ছুটে বেড়িয়েছেন আফ্রিদি।

নিজের সংস্থা ‘শহীদ আফ্রিদি ফাউন্ডেশন’র পক্ষ থেকে সাধারণ মানুষকে আর্থিক সাহায্য এবং খাবারের ব্যবস্থা করেছেন করোনার মাঝেই বাংলাদেশ জাতীয় দলের ক্রিকেটার মুশফিকুর রহিমের প্রথম ডাবল সেঞ্চুরি করা ঐতিহাসিক ব্যাটটিও নিলাম থেকে ১৭ লাখ টাকায় কিনেছিলেন আফ্রিদি।

এর আগে গত এপ্রিলে করোনাভাইরাসে আ’ক্রা’ন্ত হয়ে মা’রা যান পাকিস্তানি ক্রিকেটার জাফর সরফরাজ। আর সম্প্রতি ইংল্যান্ড সফরের প্রাথমিক দলে থাকা পাকিস্তানের ১০ ক্রিকেটারের করোনাভাইরাস পরীক্ষার ফল পজিটিভ এসেছিল।

এর মধ্যে মোহাম্মদ হাফিজ, ওয়াহাব রিয়াজ, শাদাব খান, ফখর জামান, মোহাম্মদ রিজওয়ান ও মোহাম্মদ হাসনাইনের দ্বিতীয় দফা পরীক্ষায় ফল নেগেটিভ আসে।

নাফিসের করোনা জয়…

করোনা ভাইরাস থেকে সেরে উঠেছেন জাতীয় দলের সাবেক ওপেনার নাফিস ইকবাল। চট্টগ্রামে নাফিসের সঙ্গে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছিলেন তার মা, দুই সন্তান ও গৃহকর্মী। সবাই এখন করোনামুক্ত। নাফিস নিজেই বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

বাংলোদেশ ওয়ানডে অধিনায়ক তামিম ইকবালের ভাই নাফিস ও তার পরিবারের সদস্যদের গত ১৩ জুন করোনাভাইরাস ধরা পড়ে। এরপর বাসা থেকেই চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হয়ে ওঠেন সবাই। শুরুতে মা নুসরাত ইকবাল খানকে নিয়ে দুশ্চিন্তা থাকলেও সময়ে সঙ্গে সেটা কেটে গেছে।

একই দিনে করোনা থেকে মুক্তি মিলেছে জাতীয় দলের বাঁহাতি স্পিনার নাজমুল ইসলামের। নাজমুলের মা ও বাবারও কোভিড-১৯ পরীক্ষার ফল নেগেটিভ এসেছে। ১০ দিন আগে নাজমুলের সঙ্গে একই দিনে করোনা ধরা পড়ে সাবেক ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজার। দুইদিন পর করোনা ধরা পড়ে মাশরাফির ছোট ভাই মোরসালিন বিন মুর্তজার। জানা গেছে, দুজনই এখন সুস্থ আছেন। তবে করোনা থেকে মুক্তি মিলেছে কিনা, সেটি জানা যাবে আরেকবার নমুনা পরীক্ষার পর।