“স’হিং’সতা নয়, প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ নির্বাচন চাই,” সিইসি

111

নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা ও প্রতিযোগিতা থাকবে, কিন্তু প্রতি’হিং’সা যেন না হয়। এর মধ্যেই চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচনে হ’তাহ’তের ঘটনা ঘটেছে, এটা কাম্য হতে পারে না বলে জানান প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদা।

রোববার (২৪ জানুয়ারি) দুপুর দেড়টায় চট্টগ্রাম সার্কিট হাউসে চসিক নির্বাচনে নির্বাচনী দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও আইনশৃঙ্খলারক্ষাকারী বাহিনীর সঙ্গে মতবিনিময় সভায় তিনি এসব কথা বলে।

কে এম নূরুল হুদা বলেন, ‘যারা এই নির্বাচনে প্রতিযোগিতা করছেন, তাদের সহনশীল হতে হবে। সেটা যদি অত্যন্ত আন্তরিকতাপূর্ণ হয় তাহলে স’হিং’স ঘটনা ঘটার সম্ভাবনা থাকে না।’

তিনি বলেন, ‘এর মধ্যেই কয়েকজন নিরীহ মানুষের প্রাণ ঝরেছে। আমরা তাদের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করছি। একটি জীবন এই নির্বাচনের চাইতে অনেক মূল্যবান।’

কে এম নূরুল হুদা বলেন, ‘এ অবস্থায় নির্বাচনের প্রার্থী-সমর্থকরা খুব সতর্কতার সঙ্গে নির্বাচনী কার্যাবলী পালন করবেন। আমরা এতুটুকু আশা করি প্রতিদ্বন্দ্বিতা ও প্রতিযোগিতার মধ্যে নির্বাচন হবে। স’হিং’সতার মধ্যদিয়ে নির্বাচন শেষ হবে না।

নির্বাচনের প্রার্থী ও সমর্থকদের বলব— নির্বাচনের পরও আপনারা এই সমাজে বসবাস করবেন, কিন্তু যেন আ’সা’মি বা বাদী হিসেবে বসবাস করতে না হয়।’

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন (চসিক) নির্বাচনের প্রচার শুরুর পর আচরণবিধি ভঙ্গ, হা’ম’লা–হু’ম’কিসহ শনিবার (২৩ জানুয়ারি) পর্যন্ত ৫৬টি অ’ভিযো’গ জমা হয়েছে। নির্বাচনী স’হিং’সতায় প্রাণ গেছে তিনজনের।