করোনা বৃদ্ধি পাওয়ায় দ্বিতীয় দফায় লকডাউন ঘোষণা হলো ফ্রান্সে

65

ফ্রান্স দ্বিতীয় দফায় ল’কডা’উন ঘোষণা করেছে। করোনা সং’ক্র’মণ আশঙ্কাজনক হারে বৃদ্ধি পাওয়ায় এই ঘোষণা দেওয়া হয়। স্থানীয় সময় আগামীকাল শুক্রবার থেকে এ ল’কডা’উন কার্যকর হবে বলে ঘোষণা দিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল ম্যাক্রোঁ।

এ লকডাউন অন্তত নভেম্বরের শেষ পর্যন্ত বলবৎ থাকবে বলেও জানান তিনি। সংবাদমাধ্যম বিবিসি আজ বৃহস্পতিবার এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে।

ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট জানান, ল’কডাউ’নের মধ্যে মানুষ জরুরি প্রয়োজন এবং চিকিৎসা সংক্রান্ত কাজ ছাড়া বাড়ির বাইরে যেতে পারবে না। রেস্তোরাঁ ও পানশালার মতো ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলো বন্ধ থাকবে। এ ছাড়া স্কুল ও বিভিন্ন কারখানা খোলা থাকবে।

ফ্রান্সের নতুন বিধি-নিষেধের মধ্যে রয়েছে, কর্মক্ষেত্র, স্কুল, চিকিৎসাসংক্রান্ত কাজ ও এক ঘণ্টা শরীরচর্চা করার জন্য বাইরে বের হওয়া যাবে, বাইরে বের হলে অবশ্যই অনুমতিপত্র দেখাতে হবে, এক অঞ্চলের মানুষ আরেক অঞ্চলে যেতে পারবে না,

পানশালা, রেস্তোরাঁসহ বিভিন্ন ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে, সুযোগ থাকলে অবশ্যই ঘরে বসে কাজ করতে হবে, বিশ্ববিদ্যালয়সহ বিভিন্ন উচ্চশিক্ষা সংক্রান্ত ক্লাস অনলাইনে করতে হবে, আন্তর্জাতিক সীমানা বন্ধ থাকবে।

এ ছাড়াও বলা হয়েছে, স্কুল ও গুরুত্বপূর্ণ ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান খোলা থাকবে, বেশিরভাগ সরকারি পরিষেবা সংক্রান্ত কাজ চলবে, খামার কারখানা ও নির্মাণকাজ চলমান থাকবে, ইউরোপীয় ইউনিয়নের সীমানাগুলো খোলা থাকবে,

বাইরের দেশে ভ্রমণে থাকা ফ্রান্সের নাগরিকরা ফিরতে পারবেন এবং অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ার কার্যক্রম চলবে। লকডাউন ঘোষণার সময় ম্যাক্রোঁ বলেন, ‘করোনা সংক্র’মণ যে হারে বৃদ্ধি পাচ্ছে, তা দেখে আমরা অবাক হয়েছি। এটি একটি কঠিন সময়।

আমাদের অবশ্যই ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে। এই অ’গ্নি’পরীক্ষা কাটিয়ে ওঠার জন্য নিজেদের প্রতি, আপনাদের প্রতি, আমাদের সামর্থ্যের প্রতি আমার ভরসা রয়েছে।’

এরই মধ্যে ফ্রান্সে করোনা’ভাই’রাস শনাক্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১২ লাখ ৩৫ হাজার ১৩২ জনে। এর মধ্যে মৃ”ত্যু হয়েছে মোট ৩৫ হাজার ৭৮৫ জনের। সর্বশেষ একদিনে করোনা শনাক্ত হয়েছে ৩৬ হাজার ৪৩৭ জনের এবং মৃ”ত্যু হয়েছে ২৪৪ জনের।